যৌন হয়রানি নির্মূলকরণে জেলা পর্যায়ে নেটওয়ার্ক গঠন সভা অনুষ্ঠিত মৌলভীবাজার(25-05-17)

সমাজ থেকে যৌন হয়রানি, বাল্যবিবাহ ও সাইবার ক্রাইমের মতো মারাত্মক অপরাধ বন্ধে একটি ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন ও একটি শক্তিশালী নেটওয়ার্ক গঠনের এখনই উপযুক্ত সময়। ব্র্যাকের সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচি (সিইপি)’র মেয়েদের জন্য নিরাপদ নাগরিকত্ব (মেজনিন) প্রকল্পের উদ্যোগে ২৪ মে ২০১৭ তারিখ রোজ বুধবার বিকাল ০৩:০০ টায় মৌলভীবাজার জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে যৌন হয়রানি নির্মূলকরণে জেলা পর্যায়ে নেটওয়ার্ক গঠন সভা অনুষ্ঠিত হয়। যৌন হয়রানি নির্মূলকরণে জেলা পর্যায়ে নেটওয়ার্ক গঠন সভায় উপস্থিত ছিলেন জনাব মায়া ওয়াহিদ, নারী নেত্রী, জনাব মোঃ জসীম উদ্দিন, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা, জনাব মোঃ উমেদ আলী, সাধারন সম্পাদক, মৌলভীবাজার প্রেস ক্লাব, জনাব রাশেদা বেগম, প্রধান শিক্ষক, হাফিজা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, নুরজাহান সুয়ারা , নারী নেত্রী, জনাব আব্দুল মতিন, প্রধান শিক্ষক, শাহ হেলাল উচ্চ বিদ্যালয় প্রমূখ। সভায় বক্তব্য রাখেন শ্যামলী রানি চন্দ, মাধুরী মজুমদার, ডাঃ জিল্লুল রহমান, নজরুল ইসলাম মুহিব, হোসাইন আহম্মেদ, সাইফুল ইসলাম প্রমূখ। সভায় মুক্ত আলোচনা পর্ব সঞ্চালনা করেন মীর সামসুল আলম, সিনিয়র সেক্টর স্পেশালিস্ট, সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচি, প্রধান কার্যালয়, ব্র্যাক। মেজনিন কর্মসূচি সংক্রান্ত মূল উপস্থাপনা করেন প্রশান্ত কুমার দে, আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক, সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচি, ব্র্যাক। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন মো. আরিফুর রহমান, জেলা ব্র্যাক প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, মোঃ আল আমিন, প্রোগ্রাম প্রোডিউসার, রেডিও পল্লীকন্ঠ, সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচি, ব্র্যাক। এছাড়া অনুষ্ঠানে শিক্ষক, সরকারি কর্মকর্তা, সুশীল সমাজ ও নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিবৃন্দ, বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যবৃন্দ, নারী নেত্রী, এনজিও প্রতিনিধি, জনপ্রতিনিধি এবং ইলেকট্রনিক্স, প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দসহ প্রায় ৬০ জন উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দেবাশীষ হালদার, সেক্টর স্পেশালিস্ট, সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচি, তারিক আজিজ জেলা ব্যবস্থাপক, সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচি মৌলভীবাজার, রডেওি পল্লীকন্ঠরে নউিজ প্রোডিউসার তাহমদি আহমদে,মো: মিজানুর রহমান, জে এস এস, মেজনিন প্রকল্প, সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচি, দেবদুলাল দেব, এফ ও সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচি, ব্র্যাক, মৌলভীবাজার। সভায় হাফিজা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট ওয়াচ গ্রুপের দুইজন সদস্য সকল সদস্য কর্তৃক তৈরী “যৌন হয়রানি প্রবন এলাকা চিহ্নিতকরণ ম্যাপ বা হ্যারেস ম্যাপ” প্রদর্শন ও ব্যাখা করেন। স্কুল ক্যাচমেন্ট এলাকার একটি ম্যাপ তৈরী করে কোথায় কোথায় বা কোন পয়েন্টে মেয়েদের হয়রানি বা উত্ত্যক্ত করা হয় তা চিহ্নিত করে সকলের মাঝে ব্যাখা করা হয়। উল্লেখ্য নারী ও কিশোরীদের প্রতি সব রকম সহিংসতা, যৌন হয়রানি, সাইবাল বুলিং ও বাল্যবিয়ে নির্মূলকরণে ব্র্যাকের সিইপি কর্মসূচি ‘মেয়েদের জন্য নিরাপদ নাগরিকত্ব’ বা মেজনিন কর্মসূচির মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের সচেতনতা ও আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি, শিক্ষক, অভিভাবক ও নাগরিক সমাজের সক্রিয় অবস্থান তৈরি এবং সরকারি-বেসরকারি সংস্থার অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার মাধ্যমে যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার লক্ষ্যে মৌলবীবাজার জেলার ৩০টি স্কুলসহ আরো ১০ জেলায় ৩০০ স্কুলে কাজ করছে। সবশেষে সভায় উপস্থিত সকলের সম্মতিক্রমে জনাব রাশেদা বেগম, আহ্বায়ক, জনাব মেহেদী হাসান, সিনিয়র ষ্টেশন ম্যানেজার, রেডিও পল্লী কন্ঠ, মৌলভীবাজারকে সদস্য সচিব এবং মোঃ নজরুল ইসলাম মুহিব কে যুগ্ম আহ্বায়ক করে ১১ সদস্য বিশিস্ট একটি নির্বাহী পরিষদ গঠন করা হয় এবং উক্ত নির্বাহী পরিষদকে একটি সাধারন পরিষদ গঠন করার জন্য সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সেইসাথে জনাব মায়া ওয়াহেদ, জনাব মোঃ উমেদ আলী, নুরজাহান সুয়ারা, ডাঃ জিল্লুল রহমান, জনাব মোঃ জসীম উদ্দিন এই পাঁচ জনকে উপদেষ্টা হিসেবে নাম ঘোষনা করা হয়। কমিটি গঠন শেষে উপস্থিত সকল অংশগ্রহণকারীবৃন্দ গত ১৮ মে ২০১৭ তারিখ রাজনগর উপজেলার শাম্মী বেগমকে ধর্ষনের পর নৃশংসভাবে হত্যার বিচারের দাবীতে একটি মানববন্ধন করেন।

তাহমিদ/রেডিও পল্লীকণ্ঠ

নতুন মন্তব্য যুক্ত করুন

Plain text

  • সকল HTML ট্যাগ নিষিদ্ধ।
  • ওয়েবসাইট-লিংক আর ই-মেইল ঠিকানা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই লিংকে রূপান্তরিত হবে।
  • লাইন এবং প্যারা বিরতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেওয়া হয়।
ক্যাপচা
This question is for testing whether or not you are a human visitor and to prevent automated spam submissions.
ক্যাপচা
ছবিতে দেখানো অক্ষরগুলো লিখুন